মেনু নির্বাচন করুন
পরিবার পরিকল্পনা

আদিতমারী উপজেলার ০৭নং পলাশী ইউনিয়নের পলাশী বাজারে অত্র পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রটি অবস্থিত।

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

স্বাস্থ্য কর্মসূচী

ইপিআই কর্মসূচীঃ

· কর্মসূচীর নামঃ সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচী

· কর্মসূচী বাসত্মবায়নকারীঃ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা এবং তাহার আওতাধীন সকল স্বাস্থ্য কর্মী।

· অর্থায়ন ও অন্যান্য সহায়তাকারীঃ স্বাস্থ্য ও পঃ কঃ মন্ত্রণালয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ।

-লক্ষ্য ও পদ্ধতিঃ শিশুদের ০৮টি রোগের বিরম্নদ্ধে প্রতিরোধ টিকা প্রদান ও ভিটামিন এ ক্যাপসুল এর মাধ্যমে রাতকানা রোগ  ও অপুষ্টি প্রতিরোধ।  মায়েদের কে টিটি টিকার মাধ্যমে মা এবং নবজাতক শিশুর টিটেনাস প্রতিরোধ ব্যবস্থা। মায়েদের-কে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর মাধ্যমে মায়েদের এবং নবজাতক শিশুদের ভিটামিন এ এর ঘাটতি পুরন। মূল লক্ষ্য হচ্ছে, শিশু ভোগামিত্ম এবং মৃত্যুহার কমানো।
· আওতাভুক্ত সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠীঃ ১৫-৪৯ বৎসরের সকল মহিলা এবং ০- ৬০মাস  বয়সী সকল শিশু।

ই ও সি কর্মসূচীঃ

· কর্মসূচীর নামঃ  প্রসুতি সেবা

· কর্মসূচী বাস্তবায়নকারী ঃ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা  এবং ই ও সি অমত্মর্ভুক্ত হাসপাতালসমূহের ডাক্তার ও নার্স।

· অর্থায়ন ও অন্যান্য সহায়তাকারী - স্বাস্থ্য ও পঃ কঃ মন্ত্রণালয়, ইউনিসেফ ।

· লক্ষ্য ও পদ্ধতি - নিরাপদ মাতৃত্ব ,বিপদ মুক্ত ডেলিভারী এবং শিশু ও মাতৃ মৃত্যু হার কমানো।

· আওতাভুক্ত সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠী - সকল গর্ভবতী মা।

এ আর আই কর্মসূচীঃ

· কর্মসূচীর নাম - এ আর আই।

· কর্মসূচী বাস্তবায়নকারী ঃ তত্বাবধায়ক/ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তাসহ প্রতিষ্ঠানের সকল ডাক্তার,

চিকিৎসা সহকারী, ফার্মাসিষ্ট, নার্স ।

· অর্থায়ন ও অন্যান্য সহায়তাকারী - স্বাস্থ্য ও পঃ কঃ মন্ত্রণালয়, ইউনিসেফ ।

· লক্ষ্যও পদ্ধতি - শিশুদের নিউমোনিয়া এবং শ্বাসনালী প্রদাহ জনিত রোগের চিকিৎসা এবং প্রকোপ কমানো।

· আওতাভুক্ত সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠীঃ সকল শিশু।

সেবা গ্রহিতা যে সকল সেবা পাওয়ার অধিকার সংরক্ষণ করেন:

 

১. স্বাস্থ্য উপকেন্দ্রে আগত নারী-পুরুষ, বৃদ্ধ-যুব-শিশু সকলকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হয়।

২. ডায়রিয়া রোগীদের জন্য ওআরএস সরবরাহ করা হয়।

৩. হাসপাতালে আগত প্রসূতি রোগীদের এন্টিনেটাল চেকআপসহ প্রয়োজনীয় উপদেশ দেয়া হয় এবং আয়রন

ট্যাবলেট সরবরাহ করা হয়।

৪. জাতীয় যক্ষ্মা ও কুষ্ঠ নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমেরআওতায় যক্ষ্মা রোগীদের কফ্ পরীক্ষার জন্য কফ সংগ্রহ করা হয়

এবং যক্ষ্মা ও কুষ্ঠ রোগীদের বিনামূল্যে ঔষধ সরবরাহ করা করা হয়।

৫. শিশু ও মহিলাদের ইপিআই কার্যক্রমেরআওতায় প্রতিষেধক টিকা দেওয়া হয়।

৬. উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে আগত রোগীদের স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষা দেওয়া হয়।

৭. উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে আগত কিশোর-কিশোরী ও সক্ষম দম্পতিদের মধ্যে প্রজনন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা

কার্যক্রমপরিচালনা করা হয়।

৮. প্রয়োজনে রোগীকে উপজেলা হাসপাতালে রেফার করা হয়।

৯. আগত রোগী ও তাদের আত্মীয়স্বজনগণ স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও উপদেশের জন্য সংশ্লিষ্ট

চিকিৎসকগণের সাথে সহজেই যোগাযোগ করতে পারেন।

১০. উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্রে প্রয়োজনীয় সংখ্যক নোটিশ বোর্ড সবার দৃষ্টি গোচর হয় এমন জায়গায় স্থাপিত আছে।

নোটিশ বোর্ডে প্রয়োজনীয় তথ্য লিপিবদ্ধ আছে।

১১. সরবরাহ সাপেক্ষে ঔষধসমূহ সেবাকেন্দ্র হতে বিনামূল্যে প্রদান করা হয়। তবে চিকিৎসার প্রয়োজনে কোন

কোন ঔষধ কেন্দ্রের বাহির হতে সেবা গ্রহিতাকেক্রয় করতে হতে পারে।

১২. বোর্ডে মজুদ ঔষধের তালিকা, প্রদানকৃত সেবাসমূহের তালিকা, সেবা প্রদানকারী চিকিৎসকের তালিকা

টানানো আছে।

স্বাস্থ্যসেবা ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচি

 


 

উন্নত জাতি গঠনের জন্য সুস্বাস্থ্যের অধিকারী মানুষ প্রয়োজন। সুস্বাস্থ্যের জন্য দরকার নির্মল বায়ু, বিশুদ্ধ পানি, পরিচ্ছন্ন বাসস্থান, সুষম খাদ্য, প্রভৃতি। মানসিক সুম্বাস্থ্যের জন্য চাই উত্তম সামাজিক ও মানসিক পরিবেশ। বাংলাদেশ পৃথিবীর অন্যতম ঘনবসতিপূর্ণ দেশ, এজন্য স্বাস্থ্য ব্যবস্থা উন্নত করার পাশাপাশি দরকার পরিকল্পিত পরিবার গঠন। বাংলাদেশের গ্রাম অঞ্চলে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচী বাস্তবায়নে ইউনিয়ন পরিষদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

 

ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রাপ্ত সেবা ও অধিকার 

  • স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা সেবা দেওয়ার জন্য ইউনিয়ন পরিষদে স্বাস্থ্য, পরিবার পরিকল্পনা এবং মহামারী নিয়ন্ত্রণ স্ট্যান্ডিং কমিটি আছে।
  • ইউনিয়ন পরিষদ নিজ এলাকায় জন্ম - মৃত্যুর নিবন্ধন করে।
  • এলাকার পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ বাড়ির চারপাশের আবর্জনা, জঞ্জাল প্রভৃতি দূর করতে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করে।
  • গোবর ও রাস্তার আবর্জনা সংগ্রহ এবং পশুর মৃতদেহ অপসারণ করে।
  • রোগীর চিকিৎসার জন্য কমিউনিটি ক্লিনিক, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ যোগাযোগ করার পরামর্শ দেয়।
  • স্বাস্থ্য রক্ষা এবং টিকাদান কর্মসূচি সম্পর্কে জনগণকে জানায় এবং বাস্তবায়নে সহযোগিতা করে।
  • ইউনিয়ন পর্যায়ে কর্মরত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মীদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে।
  • স্বাস্থ্যসেবা ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম বাস্তবায়নে সার্বিক সাহায্য ও সহযোগিতা করে এবং গণসচেতনতা তৈরি করে।

 

স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা সেবা কোথায় পাওয়া যায়? 

দেশের সরকারী হাসপাতাল,উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র,কমিউনিটি ক্লিনিক এবং ইউনিয়ন কর্মীদের কাছে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা সেবা পাওয়া যায়।

 

সচরাচর জিজ্ঞাসা  

প্রশ্ন ১: ইউনিয়ন পর্যায়ে স্বাস্থ্য সেবা ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচী বাস্তবায়নে দায়িত্ব প্রাপ্ত কারা? 

উত্তর: : ইউনিয়ন পর্যায়ে স্বাস্থ্য সেবা ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচী বাস্তবায়নে দায়িত্ব প্রাপ্ত স্বাস্থ্য, পরিবার পরিকল্পনা এবং মহামারী নিয়ন্ত্রণ স্ট্যান্ডিং কমিটি।

প্রশ্ন ২: গ্রামীণ এলাকায় জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধীকরণের দায়িত্ব কার? 

উত্তর: ইউনিয়ন পরিষদ গ্রামীণ এলাকায় জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন করে।

প্রশ্ন ৩: ইউনিয়ন পর্যায়ে স্বাস্থ্য সেবা  নিশ্চিত করতে ইউনিয়ন পরিষদ কি ভূমিকা রাখে? 

উত্তর: ইউনিয়ন পরিষদ ময়লা,আবর্জনা, জঞ্জাল প্রভৃতি দূর করতে জনগণকে উৎসাহিত করে, রোগীর চিকিৎসার জন্য কমিউনিটি ক্লিনিক, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ যোগাযোগ করার পরামর্শ দেয়।

প্রশ্ন ৪:টিকাদান কর্মসূচীতে ইউনিয়ন পরিষদ কি দায়িত্ব পালন করে? 

উত্তর: টিকাদান কর্মসূচি সম্পর্কে জনগণকে অবহিতকরণ এবং বাস্তবায়নে সহযোগিতা প্রদান করে থাকে।

প্রশ্ন ৫: পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচী বাস্তবায়নে ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্ব কি? 

উত্তর: ইউনিয়ন পর্যায়ে কর্মরত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মীদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে।

 


 

তথ্যসূত্র

 

ইউনিয়ন পরিষদ প্রশিক্ষণ ম্যানুয়েল (২০০৩), এ কে শামসুল হক ও কাজী মোঃ আফছার হোসেন ছাকী (সম্পাদিত), জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট (এনআইএলজি), ২৯ আগারগাঁও, শেরে বাংলা নগর, ঢাকা-১২০৭।

বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে বাংলাদেশ সরকার, বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি এবং অন্যান্য দাতাদেশ ও সংস্থার দেওয়া খাদ্য সাহায্য ব্যবহার করা হয়। খাদ্য সাহায্যের মাধ্যমে বাস্তবায়িত কর্মসূচিগুলো খাদ্য সহায়তা কর্মসূচি নামে পরিচিত।

- See more at: http://infokosh.gov.bd/atricle/%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%A5%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%B8%E0%A7%87%E0%A6%AC%E0%A6%BE-%E0%A6%93-%E0%A6%AA%E0%A6%B0%E0%A6%BF%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%AA%E0%A6%B0%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%B2%E0%A7%8D%E0%A6%AA%E0%A6%A8%E0%A6%BE-%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%AE%E0%A6%B8%E0%A7%82%E0%A6%9A%E0%A6%BF#sthash.KvIPk9NU.dpuf

ছবি নাম মোবাইল
মোছাঃ মোসলেমা বেগম 01731440110

ছবি নাম মোবাইল

ক. গর্ভ কালীন যন্ত

খ. নিউমোনিয়া

গ. কুষ্ঠরোগ

ঘ. ডায়রিয়া বা পাতলা পায়খানা

ঙ. টাইফয়েট জ্বর

চ. পরিবার পরিকল্পনা

ছ. এবরসন/গর্ভপাত

জ. এইচআইভি/এইডচ

ঝ. প্রজনন স্বাস্থ্য

ঞ. স্ত্যন ক্যান্সার

ইত্যাদি প্রকল্পের কাজ বিদ্যামান রয়েছে।

লালমনিরহাট জেলা সদয় হইতে বাস, অটোরিক্সা, রিক্সা এবং বাই সাইকেল যোগে যাওয়া যাবে।

আদিতমারী উপজেলা সদর হইতে বাস অটো রিক্সা,রিক্সা এবং বাইসাইকেল যোগে যাওয়া যাবে।

পলাশী ইউনিয়ন হতে বাস, অটো রিক্সা, রিক্সা বাই সাইকেল এবং হেটে যাওয়া যাবে।



Share with :

Facebook Twitter